সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
গোপালগঞ্জে সাংবাদিক পুত্র হত্যার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় লোহাগড়ায় বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, লুটপাট গুরুতর আহত দু’জনকে ঢাকায় প্রেরণ বাগেরহাটের রামপালে পুলিশের পৃথক অভিযানে দুই মাদক কারবারি আটক ফটিকছড়ি সাংবাদিকদের সংগঠন রিপোটার্স ইউনিটির সভা অনুষ্ঠিত। রামপালে পিক-আপের ধাক্কায় চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী নিহত লোহাগড়া বাজারে দুটি মোবাইলের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি, মোবাইলসহ অর্ধকোটি টাকার মালামাল চুরি  আনার হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন আসামির আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত এম পি আনারের দেহাংশ উদ্ধারে কসাই জিহাদকে রিমান্ডের আবেদন  মোংলা থানার ওসির অপসারনের দাবীতে বাগেরহাটে মানববন্ধন চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২৩ তম সভাপতির দায়িত্বে জনাব মুহিউদ্দিন আহমদ।

কলেজছাত্র হত্যায় যুবকের যাবজ্জীবন, ও অস্ত্র মামলায় অপর আসামির ১০ বছরের সাজা।

এ জে এম ইসমাইল হোসেন লক্ষীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপলোডের সময় : সোমবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২২

লক্ষ্মীপুরে কলেজ ছাত্র শাওন হত্যা মামলায় মো. শাকিল পাটওয়ারী নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। এই মামলায় অন্য ৮ আসামীকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়।
অপর একটি অস্ত্র মামলায় শাহ আলম নামে অন্য এক আসামীর ১০ বছর সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন একই আদালত। এ আসামিকেও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।
সোমবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে পৃথক দুই মামলার রায় দেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রহিবুল ইসলাম। রায়ের সময় দন্ডিত আসামীরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।
যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত শাকিল লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের বাসিন্দা মৃত আবু তাহের হারুনের ছেলে। অপর দন্ডিত শাহ আলম সদর উপজেলার বশিকপুর গ্রামের সাহাব উদ্দিন মাষ্টারের ছেলে।
আদালত সূত্রে জানা যায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ২০১৬ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর লক্ষ্মীপুরের আভিরখীল গ্রামে প্রকাশ্যে কলেজ ছাত্র শাওনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় একই দিন নিহতের খালাত ভাই সালাহউদ্দীন লোটাস বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সদর থানায় ১০জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৩১ জানুয়ারি ৯জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।
অপর আসামী শাহ আলম ২০২০ সালের ২০ জুন অস্ত্র ও গুলিসহ বশিকপুর এলাকা থেকে চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা করে। মামলার তদন্ত শেষে ওই বছরের ৩১ জুলাই আদালতে চার্জশিট দেয়া হয়।
দীর্ঘ শুনানি ও স্বাক্ষীদের সাক্ষাগ্রহণ শেষে আদালত এই দুই মামলায় রায় ঘোষণা করেন। এ ছাড়া অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় হত্যা মামলা থেকে ৮ আসামীকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়।
লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের সরকারি কৌসুলী (পিপি) অ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..