সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
গোপালগঞ্জে সাংবাদিক পুত্র হত্যার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় লোহাগড়ায় বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, লুটপাট গুরুতর আহত দু’জনকে ঢাকায় প্রেরণ বাগেরহাটের রামপালে পুলিশের পৃথক অভিযানে দুই মাদক কারবারি আটক ফটিকছড়ি সাংবাদিকদের সংগঠন রিপোটার্স ইউনিটির সভা অনুষ্ঠিত। রামপালে পিক-আপের ধাক্কায় চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী নিহত লোহাগড়া বাজারে দুটি মোবাইলের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি, মোবাইলসহ অর্ধকোটি টাকার মালামাল চুরি  আনার হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন আসামির আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত এম পি আনারের দেহাংশ উদ্ধারে কসাই জিহাদকে রিমান্ডের আবেদন  মোংলা থানার ওসির অপসারনের দাবীতে বাগেরহাটে মানববন্ধন চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২৩ তম সভাপতির দায়িত্বে জনাব মুহিউদ্দিন আহমদ।

সাঁতার কাটতে গিয়ে উপ-কর কমিশনারের মৃত্যু

সংগ্রাম প্রতিদিন ডেস্ক ঃ
  • আপলোডের সময় : বৃহস্পতিবার, ৫ মে, ২০২২

নোয়াখালীর
চাটখিলে একটি দিঘিতে সাঁতার কাটতে নেমে ঢাকা কর অঞ্চল-১৩ এর উপ-কর কমিশনার মো. ওমর ফারুক মাসুমের (৩৫) মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৪ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের মল্লিকা দিঘি থেকে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরে স্থানীয় ওহাব তৈয়বা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ওমর ফারুক মাসুম ৩১তম বিসিএসে ট্যাক্স (কর) ক্যাডারে যোগদান করেন। তিনি ঢাকা কর অঞ্চল-১৩ এর উপ-কর কমিশনার (সদর দপ্তর) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কালিকাপুর গ্রামের কাশেম আলী মিছাব বাড়ির মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওমর ফারুক মাসুম ছয় বন্ধুর সঙ্গে মল্লিকা দিঘিতে গোসল করতে নামেন। বন্ধুরা সবাই সাঁতার কেটে দিঘীর মাঝখানে যান। পরে ছয় বন্ধু কিনারায় ফিরে এলেও মাসুম আর ফিরতে পারেননি। তিনি সেখানে ডুবে যান। তবে তিনি কীভাবে ডুবে গেলেন তা কেউ নিশ্চিত করে জানাতে পারেননি। খবর পেয়ে খিলপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই ইকবাল হোসেন ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। স্থানীয়দের সহায়তায় বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে দিঘি তল্লাশি করে মাসুমকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করেন তারা। পরে উপজেলার ওহাব তৈয়বা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত মাসুমের ভগ্নিপতি মো. ওয়াহিদুর রহমান জানিয়েছেন, বাড়িতে মাসুমের কেউ থাকে না। ছয় বন্ধু মিলে ঘুরতে এসেছে। তার স্ত্রী ও দুই মেয়ে রয়েছে। তার মা চট্টগ্রামে থাকেন। মূলত সাঁতার কাটাই কাল হয়েছে মাসুমের।

অপরদিকে, মেধাবী কর্মকর্তা ওমর ফারুকের অকাল মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (ট্যাকসেশন) অ্যাসোসিয়েশন। শোক বার্তায় বলা হয়, কর বিভাগের অন্যতম মেধাবী ও অমায়িক কর্মকতা ছিলেন ওমর ফারুক। ৩১তম ব্যাচের কর্মকর্তা (মেধা তালিকায় দ্বিতীয়) ফারুক তাঁর উজ্জ্বল কর্মজীবনে আয়কর বিভাগের বিভিন্ন কর অঞ্চলে অত্যন্ত সুনামের সাথে কাজ করেছেন। এই ক্ষণস্থায়ী জীবনকে অর্থবহ করে তোলার মতো দৃঢ়তা, মেধা, সততা, সদালাপী, বিনয়ী, পরিশ্রমি ও সবার প্রতি মমত্ববোধ দেখিয়েছেন। মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..