শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সাতক্ষীরা কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগ ও মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের নেতা-কর্মীদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা। চবিতে চলছে হল সিলগালা। নড়াইলে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীর মৃত্যু  নড়াইলে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৭   সিংড়ায় মাসব্যাপী চলনবিল বৃক্ষরোপণ উৎসবে বিনামূল্যে গাছের চারা বিতরণ পুরাতন সাতক্ষীরায় জমিজমা বিরোধে ৪জনকে পিটিয়ে আহত কোটা সংস্কারের দাবিতে বঙ্গভবনের স্মারকলিপি দিলেন শিক্ষার্থীরা যারা না জেনে সমালোচনা করেন, তারা মানসিক রোগী: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশু গৃহকর্মীকে  নির্যাতনের ঘটনায় দম্পতি গ্রেফতার। সাভারে চুরির অপবাদ দিয়ে শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক দুই

সাংবাদিক গ্রেফতার ও কালো আইন বাতিলের এক দফা দাবিতে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন

সুদীপ সাহা উপজেলা প্রতিনিধি,  বাউফল(পটুয়াখালী)।
  • আপলোডের সময় : শনিবার, ১ এপ্রিল, ২০২৩
 প্রথম আলোর পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান ও নিজস্ব প্রতিবেদক শামসুজ্জামান এবং যুগান্তর বিশেষ প্রতিবেদক মাহবুব আলম ওরফে লাবলুর বিরুদ্ধে করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা প্রত্যাহারসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের এক দফা দাবিতে পটুয়াখালীর বাউফলে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। বাউফল প্রেসক্লাবের উদ্যোগে গতকাল শনিবার বেলা ১১ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত বাউফল প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে ঘন্টাব্যাপী ওই কর্মসূচি চলে। সাংবাদিক আসাদুজ্জামান সোহাগের সঞ্চালনায় ও বাউফল প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক কামরুজ্জামান বাচ্চু, জিতেন্দ্র নাথ রায়, মো. দেলোয়ার হোসেন, আরেফিন সহিদ, বশির উদ্দিন, মাই টিভি ও ভোরের পাতার অহিদুজ্জামান ডিউক ও উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক স্যামুয়েল আহম্মেদ লেনিন প্রমুখ। এ সময় বাউফল প্রেসক্লাব ও রিপোর্টার্স ইউনিটির বিভিন্ন প্রিন্ট ও বেসরকারি টেলিভিশনের অর্ধশত সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য এক কালো অধ্যায়। বাক স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে ধ্বংস করার জন্য এই কালো আইন। বর্তমান প্রেক্ষাপটে মাছ, মাংস ও ভাত অধিকার নিয়ে একজন নাগরিকের বৈধ বক্তব্য প্রকাশ করায় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অভিযোগে সাংবাদিকদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো মধ্যযুগীয় বর্বরতা ছাড়া কিছুই না। বরং এভাবে সাংবাদিকদের হয়রানি করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। বক্তারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের এক দফা দাবি জানিয়েছেন। পাশাপাশি তাঁরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামানের নিঃশর্ত মুক্তি, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান ও যুগান্তরের বিশেষ প্রতিবেদক মাহবুব আলমের বিরুদ্ধে আনিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..