সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মধুখালীতে অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী লোহাগড়ায় সংখ্যালঘুদের চলাচলের রাস্তা অবরুদ্ধ করে রেখেছে একদল ভূমি দস্যু  সন্ত্রাসী  লোহাগড়ায় পুলিশের তান্ডব প্রতিবাদে  এলাকাবাসীর বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন  বাগেরহাটের মংলায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ১৫ কেজি গাঁজাসহ এক নারী মাদক কারবারি আটক নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জে হিলফুল ফুজুল যুব সংঘের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রিক বিতরণ খুলনার রূপসায় সালাম জুট মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১৬ টি ইউনিট , নড়াইলে ধান ক্ষেতে প্রতিক্ষণ বিমান!  রাউজান থানায় সড়ক দূর্ঘটনায় বাঁশখালীর ২ হাফেজ ইমামের মৃ*ত্যু বাগেরহাটে অসহায় হত দরিদ্র মানুষের হাতে ঈদ উপহার তুলে দিলেন জনতার এমপি শেখ সারহান নাসের তন্ময় গণমাধ্যমকর্মীদের সংগঠন বাংলাদেশ রিপোর্টার্স ইউনিটি’র উদ্যোগে ইফতার ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

লোহাগড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১,খবর শুনে অপরপক্ষের এক বৃদ্ধের মৃত্যু।

স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল
  • আপলোডের সময় : মঙ্গলবার, ২৯ আগস্ট, ২০২৩

নড়াইলের লোহাগড়ার ইতনা ইউনিয়নে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হাতুড়ি ও লাঠির আঘাতে এস এম বরকত আলী ওরফে সাহেব (৫৯ ) নিহত হয়েছেন।

এদিকে প্রতিপক্ষের নিহতের খবর শুনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কেরামত মোল্লা (৬৫) মারা গেছে।

মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) বিকালে লোহাগড়া উপজেলার ইতনা ইউনিয়নের পাংখারচর এলাকার কাজিপাড়া চৌরাস্তায় এ ঘটনা ঘটে।

লোহাগড়া থানা পুলিশের পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) শেখ মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহত এস এম বরকত আলী ওরফে সাহেব দক্ষিণ পাংখারচর গ্রামের কাজী পাড়ার মৃত আলফু শেখের ছেলে। তিনি পেশায় একজন দলিল লেখক।

এছাড়া হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া বৃদ্ধ হলেন একই গ্রামের মৃত রউফ মোল্লার ছেলে কেরামত মোল্যা।

পুলিশ এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, ইতনা ইউনিয়নের দক্ষিণ পাংখারচর গ্রামের কাজীপাড়ার এস এম বরকত আলীর সঙ্গে একই গ্রামের কেরামত মোল্লার জমি নিয়ে ৩ মাস ধরে দ্বন্দ্ব সংঘাত চলে আসছিল।

এ নিয়ে মঙ্গলবার বিরোধপূর্ণ জমির সমাধানের জন্য উভয় পক্ষ পাংখারচর এলাকার কাজীপাড়া চৌরাস্তা বাজারে সালিশে বসেন। এসময় জমির কাগজপত্র দেখার এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে কথাবার্তার এক পর্যায়ে কেরামতের ছেলে নেপাল ও রকির নেতৃত্বে রুনু, হামীম,আমীনসহ ১০/১২ জন হাতুড়ি ও লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে এস এম বরকত আলী ওরফে সাহেবকে হত্যা করে।

এদিকে হত্যার খবর শুনে প্রতিপক্ষের প্রধান বৃদ্ধ কেরামত মোল্লা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

এবিষয়ে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ দিলরুবা জানান হাসপাতালে আনার আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

এ বিষয়ে লোহাগড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) শেখ মিজানুর রহমান বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নিহত দু’জনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা চলছে।

 

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..