শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
প্রাথমিক থেকে কলেজ পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাত দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। আজ ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে যা বললেন ড. বেনজীর আহমেদ প্রাণিসম্পদে ভরবো দেশ, গড়বো স্মার্ট বাংলাদেশ”  প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী ২০২৪ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। লোহাগড়ার লাহুড়িয়া পুলিশের অভিযানে ১২ কেজি গাঁজা ও ১টি প্রাইভেটকারসহ ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার। ঈদগাঁও ইউনিয়ন নির্বাচন: ৩ প্রার্থীর মধ্যে মাঠ পর্যায়ে কে এগিয়ে!  সুন্দরবনের ফাঁদ সহ হরিণ শিকারী আটক করেছে বন বিভাগ মধুখালীতে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত মধুখালীতে মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা  গলাচিপায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত বাঁশখালীতে জমির বিরুধ নিয়ে সংঘর্ষ উভয় পাক্ষের আহত ১০

দেবর ছিলেন শ্রীদেবীর পছন্দের সহশিল্পী

রিপোর্টারের নাম
  • আপলোডের সময় : রবিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২১

গত শতকের আশি ও নব্বইয়ের দশকে শ্রীদেবী ও অনিল কাপুর জুটি উপহার দিয়েছে একাধিক হিট ছবি। সেই তালিকায় আছে ‘লমহে’, ‘লাডলা’, ‘জুদাই’, ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’, ‘জানবাজ’–এর মতো ছবি। পর্দায় তাঁদের রসায়ন এক ভিন্ন স্বাদ এনে দিত। অমিতাভ বচ্চন, মিঠুন চক্রবর্তী, জিতেন্দ্রসহ একাধিক সুপারস্টারের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন শ্রীদেবী। কিন্তু প্রয়াত এই নায়িকার সবচেয়ে পছন্দের সহশিল্পী ছিলেন তাঁর দেবর অনিল কাপুর। শ্রীদেবী নিজেই সে কথা জানিয়েছিলেন মেয়ে জাহ্নবী কাপুরকে।
সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে জাহ্নবী জানান, ‘অনিল চাচু (কাপুর) আমার মায়ের সবচেয়ে প্রিয় সহশিল্পী ছিলেন। মা আমাকে সব সময় বলতেন, অনিল চাচুর কাজ ভালোভাবে দেখতে আর তাঁর কাছ থেকে শিখতে। সত্যি বলতে অনিল চাচু ছাড়া তিনি অন্য কোনো অভিনেতার কথা আমাকে কখনো বলেননি। মা বলতেন, কাজের প্রতি তাঁর (অনিল কাপুর) যে একাগ্রতা, সেটা থেকে আমার শেখা উচিত। মা আরও একটা কথা বলতেন। সেটা হচ্ছে, চাচু অত্যন্ত পরিশ্রমী। আমি যেন তাঁর এসব গুণ দেখে অনুপ্রাণিত হই। মা বলতেন, চাচুর টাইমিং অসম্ভব ভালো। বিশেষ করে “নো এন্ট্রি” ছবিতে তিনি ছিলেন অতুলনীয়। তাঁরা (শ্রীদেবী-অনিল) যখনই পর্দায় এসেছেন, তখনই একটা বিশেষ এনার্জি বয়ে এনেছেন।’

সেই অনুষ্ঠানে উঠে আসে অনিল কাপুরের দুটো কালজয়ী ছবি ‘নায়ক’, আর ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’র কথা। এ প্রসঙ্গে জাহ্নবী বলেন, ‘“নায়ক” আর “মিস্টার ইন্ডিয়া” ছবির অ্যাকশন দৃশ্যগুলো আমি কিছুতেই দেখতাম না। আমার জন্য অ্যাকশন দৃশ্যগুলো দেখা খুবই কঠিন ছিল। দৃশ্যগুলো দেখলেই কাঁদতে থাকতাম। মা আমাকে বলেছিলেন, আসলে আমার আঙ্কেল (অনিল কাপুর) আছেন বলে আমি দেখতে কষ্ট পাচ্ছি। তিনি দারুণ কথা বলেছিলেন। কিন্তু এর একটা অন্য কারণও আছে। আসলে চাচুর অভিনয় এত বাস্তবসম্মত যে, তাঁকে দেখলে যে কেউ কষ্ট পাবে। আবার তিনি আপনাকে অনাবিল আনন্দও দিতে পারেন।’

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..