শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ

ফরিদপুর সাংবাদিক মুজাহিদুল ইসলাম ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত।

স্টাফ রিপোর্টারঃ ফরিদপুর ঃ
  • আপলোডের সময় : বুধবার, ৩ আগস্ট, ২০২২

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দৈনিক ঢাকা টাইমস পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক মুজাহিদুল ইসলাম নাঈমের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৩ আগস্ট) সকাল ১১টায় প্রেসক্লাব চত্বরে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করেন আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাব। মানববন্ধনে আলফাডাঙ্গা, কাশিয়ানী ও বোয়ালমারী উপজেলার কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী এবং যুবসমাজ অংশ গ্রহন করেন ।

মানববন্ধনে আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. সেকেন্দার আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবীরের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, বোয়ালমারীর প্রেসক্লাব সভাপতি এ্যাড. কোরবান আলী, কাশিয়ানী প্রেসক্লাবের সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান ,সাধারন সম্পাদক নিজামুল আলম মোরাদ, আরজেএফ কাশিয়ানী শাখার সভাপতি তায়জুল ইসলাম টিটোন, আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি খান আসাদুজ্জামান টুনু, দৈনিক ঢাকা টাইমস পত্রিকার বোয়ালমারী প্রতিনিধি আমীর চারু বাবলু ও সাংবাদিক মুজাহিদের পিতা মাও. আবু বকর সিদ্দিক, পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রনি মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা মাসু মিয়া প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। কিন্তু সাংবাদিকদের ওপর যখন নির্যাতন, হামলা ও হয়রানি করা হয় তখন সমাজ ও রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ দুর্বল হয়ে পড়ে। সাংবাদিকরা তাদের কলমের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন প্রকার অনিয়ম, দুর্নীতির খবর প্রকাশ করে দেশকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই সাংবাদিক মুজাহিদের ওপর হামলার ঘটনার মূলহোতা জাপান মোল্যাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।জানা যায়, গত সোমবার(১ আগস্ট) দুপুরে আলফাডাঙ্গা পৌরসভার পরিবহণ বাসস্ট্যান্ডে সাংবাদিক মুজাহিদের ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। এরপর ২ আগস্ট মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিক মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম নিজেই বাদী হয়ে আলফাডাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামী আলফাডাঙ্গা পৌর মেয়রের ভাই জাপান মোল্যা (৪৫) ও উপজেলার বুড়াইচ এলাকার শাহাদাৎ হোসেনের স্ত্রী পারুল বেগম (৫০) নামে এক নারীকে এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়। এছাড়াও মামলায় অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। পরবর্তীতে মামলার এজাহারভুক্ত আসামী পারুল বেগমকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করেন। আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন। এদিকে মামলার প্রধান আসামি জাপান মোল্যা বর্তমান পলাতক রয়েছেন।

আলফাডাঙ্গা থানা ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, ‘সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। একজন আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। প্রধান আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..