শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নড়াইলে শিক্ষকদের সঙ্গে এমপি মাশরাফির মতবিনিময় সিংড়ায় পিতা কর্তৃক কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে- পিতা গ্রেপ্তার  রাজধানীতে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে ৪ জন নিহত বাঁশখালীতে প্রাইমারী শিক্ষকদের মাঝে বঙ্গবন্ধু বিষয়ক বই বিতরণে, “চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ, পাইকগাছার কপিলমুনি বাজার মনিটরিং করেছেন -ইউএনও আল-আমিন সিরাজগঞ্জে আন্তঃশ্রেণী ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম. হারুন অর রশীদ এর স্বেচ্ছাচারিতা ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে সদস্যদের অনাস্থা ও সংবাদ সম্নেলনঃ প্রেসক্লাব পাইকগাছা এর কমিটি গঠন গ্রাম পুলিশের অপকর্মের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন  সাভারে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে জনসংযোগ করেছেন তুহিন

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অসহায় গরীব কিশোরী কে গণধর্ষণ।

মোঃ ওমর ফারুক( কুমিল্লা, প্রতিনিধি)
  • আপলোডের সময় : মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

গত ১৯. ০৯.২২খ্রীঃ তারিখ আনুমানিক বিকাল ১৬:২০ ঘটিকার সময় দাউদকান্দি মডেল থানাধীন গৌরীপুর ইউনিয়ন এর পশ্চিম হুগলিয়া জনৈক আশরাফ এর জমি সংলগ্ন ঢাকা -চট্রগ্রাম মহাসড়কের পাশে ঝোপঝাড় থেকে একটি কিশোরি মেয়ে অচেতন অবস্থায় পরে থাকতে দেখে এক পথচারী, তিনি তখনি দাউদকান্দি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কে অবহিত করলে তাৎক্ষণিক ওনি নিজে এবং সহকারী পুলিশ সুপার দাউদকান্দি সার্কেল মহোদয় সহ একটি চৌকস তদন্তকারী টিম কতৃক ভিকটিম কে উদ্ধার করে প্রাথমিক ভাবে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (গৌরীপুর) প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। ভিকটিমের শারিরীক অবস্থা অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নারী পুলিশ সদস্যের মাধ্যমে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

বর্তমানে ভিকটিম কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
উল্লেখ্য যে, ভিকটিম এর সহিত পশ্চিম হুগলিয়ার অভিযুক্ত আসামি মোঃমিরাজুল ইসলাম প্রকাশ শরিফের সাথে পরিচয় সুবাদে, পরিচয় হয় মিরাজের সাথে, মিরাজ চাকরির প্রলোভন দেখায় ভিকটিম কিশোরী কে, তখন ভিকটিম বলেন তার কাছে এন আই ডি কার্ড এবং জন্ম নিবন্ধন কার্ড ও নেই। মিরাজ সব কাগজ পত্র সহ চাকরি দিবে বলে ভিকটিম কে আশ্বাস দেয়, ঘটনার দিন সুকৌশলে ভিকটিম কে ডেকে নেয় গৌরীপুর পশ্চিম হুগলিয়া ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়কের পাশে ঝোপঝাড়ে নিয়ে যায় এবং সেখানে তার সাথে আরো পাঁচ জন মিলে ভিকটিম কে ধর্ষন ও শারীরিক নির্যাতন করে, অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। ভিকটিমের তথ্য মতে প্রথমে মিরাজুল ইসলাম শরিফ, অপু, মোকলেছ কে আটক করে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি এবং সার্কেল এস পি মহোদয়।

এ বিষয়ে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি মহোদয়ের কাছ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনা আমরা অতি গুরুত্বপূর্ণ ভাবে দেখছি এবং যাদের আমরা এখন আটক করতে পারিনি তাদের কে আটক করতে অভিযান অব্যহত রয়েছে। ইনশাআল্লাহ আমরা খুব দ্রুত তাদের আটক করতে পারবো বলে আশাবাদী।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..