মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
পঞ্চগড় জেলা পুলিশের বিশেষ অভিযানে  ০৫ জন গ্রেফতার  লোহাগড়ায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে বিয়ে, নড়াইলে ইভটিজিং এর দায়ে যুবক গ্রেপ্তার, ২ মাসের কারাদণ্ড সাভারে দুইশত বিশ পিচ ইয়াবাসহ দুই জন আটক জেলা প্রশাসকের পরিকল্পনায় স্বপ্ন যাত্রা এ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর এমপি নয়নের। কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের জনশৃঙ্খলা ব্যবস্থাপনা কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠিত  পঞ্চগড়ে ২০ জন ছাএ মিলে ১১বিঘা চা গাছ রোপন কুষ্টিয়া পাবলিক স্কুলের আয়োজনে পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত আজ জাতীয় দৈনিক সংগ্রাম প্রতিদিন ই-পেপার – e.SangramPratidin.com লোহাগড়ায় চুনতি ১৯ দিন ব্যাপি সীরাতুন্নবী সঃ মসজিদে বায়তুল্লাহ র উন্নয়ন কাজ শুরু,

ঝালকাঠি,গৃহবধুর ধর্ষণের অভিযোগে,এসআই মোঃআলমগীর হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপলোডের সময় : শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২

ধর্ষণ চেষ্টাকালে গৃহবধুর হাতে জখম হয়ে ‘আত্মগোপনে’ থাকা পুলিশের সেই এসআই আটক হয়েছে। ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় এসআই মো. আলমগীর হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে ঝালকাঠি জেলা শহরের শেখ রাসেল স্টেডিয়াম এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

গ্রেপ্তার এসআই মো. আলমগীর হোসেন কাঁঠালিয়া উপজেলার তারাবুনিয়া তদন্ত কেন্দ্রে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি ভোলা জেলা সদরে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত সোমবার রাতে (৪ এপ্রিল) এসআই আলমগীর ওই নারীর বাড়িতে যায়। তাঁর স্বামী চট্টগ্রামে চাকরি করেন। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তাকে ধর্ষণচেষ্টা করে ওই এসআই। নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এসআই আলমগীরকে কুপিয়ে রক্ষা পান তিনি। এ সময় পুলিশ কর্মকর্তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটিও রেখে দেন ওই নারী।

ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, তাঁকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণচেষ্টা করলে তিনি পুলিশ কর্মকর্তাকে কুপিয়ে আহত করে ৯৯৯ এ ফোন করেন। খবর পেয়ে কাঁঠালিয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই এসআই আলমগীর ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে তিনি থানায় অভিযোগ করতে চাইলে পুলিশ আগে মেডিক্যালে গিয়ে পরীক্ষা করিয়ে আসতে বলে।

তিনি অভিযোগ করেন, বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। লোক পাঠিয়ে আমাকে চাপ দেওয়া হচ্ছে, আমি মামলা করলে পুলিশও আমার বিরুদ্ধে মামলা করবে। আমি বোনের বাসায় আছি। এ ঘটনার বিচার চাই। আমার কাছ থেকে ধার নেওয়া টাকাও ফেরৎ দেওয়ার দাবি জানাই।

কাঁঠালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুরাদ আলী বলেন, ‘ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় এসআই মো. আলমগীর হোসেনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বাদীকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।’

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..