বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
মধুখালীতে অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী লোহাগড়ায় সংখ্যালঘুদের চলাচলের রাস্তা অবরুদ্ধ করে রেখেছে একদল ভূমি দস্যু  সন্ত্রাসী  লোহাগড়ায় পুলিশের তান্ডব প্রতিবাদে  এলাকাবাসীর বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন  বাগেরহাটের মংলায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ১৫ কেজি গাঁজাসহ এক নারী মাদক কারবারি আটক নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জে হিলফুল ফুজুল যুব সংঘের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রিক বিতরণ খুলনার রূপসায় সালাম জুট মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১৬ টি ইউনিট , নড়াইলে ধান ক্ষেতে প্রতিক্ষণ বিমান!  রাউজান থানায় সড়ক দূর্ঘটনায় বাঁশখালীর ২ হাফেজ ইমামের মৃ*ত্যু বাগেরহাটে অসহায় হত দরিদ্র মানুষের হাতে ঈদ উপহার তুলে দিলেন জনতার এমপি শেখ সারহান নাসের তন্ময় গণমাধ্যমকর্মীদের সংগঠন বাংলাদেশ রিপোর্টার্স ইউনিটি’র উদ্যোগে ইফতার ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

লোহাগড়া শালনগর দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির টাকা আত্নসাতের অভিযোগ

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি
  • আপলোডের সময় : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

নড়াইলের লোহাগড়ায় শালনগর ইউপির মাকড়াইল দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবার লিখিত অভিযোগ করেছেন। লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার শালনগর ইউনিয়নের ২০ নং মাকড়াইল দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা ওই গ্রামের নগদ এজেন্ট ফয়জুল রহমান শিকদারের মাধ্যমে প্রদান করা হত।

সম্প্রতি উক্ত এজেন্ট মালিক কিছু শিক্ষার্থীর টাকা ঠিকমত প্রদান না করে অভিভাবকদের বলেন ,আপনাদের টাকা আসেনি। অভিভাবকরা আরও অভিযোগ করেন, কিছু শিক্ষার্থীর টাকা দেন আর কিছু শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির টাকা নিজে ক্যাশ আউট করে নিয়ে গোপন পিন কোট পরিবর্তন করে দেন।

পরে এজেন্টের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আপানাদের টাকা আসেনি, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও নগদ অফিসে যোগাযোগ করেন। এ ভাবে বার বার আমরা উপবৃত্তির টাকা নিয়ে সমস্যায় । এর প্রতিকার চেয়ে গত ৫ জুলাই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বরাবর এজেন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ভুক্তভোগীরা লিখিতি অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত এজেন্ট ফয়জুল রহমান শিকদার বলেন, শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা আমার একাউন্টে তো আসে না ।

যারা অভিযোগ করেছেন তাদের টাকা আসেনি। ১৬১৬৭ নং যোগাযোগ করলে বলা যাবে তাদের টাকা কি হয়েছে। আমি কোনো শিক্ষার্থীর টাকা উত্তোলন করিনি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ হিমায়েত হোসেন বলেন, অভিভাবকদের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি এবং খোঁজ খবর নিয়েছি তাতে এজেন্ট মালিক কিছু শিক্ষার্থীর টাকা ক্যাশআউট করে নিয়েছে।

অভিযোগের কপিটিও স্যারের কাছে পাঠিয়েছি। লোহাগড়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুজ্জামান খাঁন বলেন, অভিভাবকদের অভিযোগের কপি পেয়েছি ।

শিক্ষার্থীদের আত্মসাতের টাকা উদ্ধার এবং এজেন্টের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট জানান হয়েছে।

দয়া করে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..